আমাদের সেবা সমূহ

colonoscopy

colonoscopy

ক্যান্সার একটি প্রাণঘাতী রোগ। এক সময় বলা হতো ক্যান্সারের নেই অ্যানসার। কিন্তু চিকিৎসা বিজ্ঞানের উন্নতির সাথে সাথে এই ধারণা বদলে গেছে। বিশেষ করে কোলোরেক্টাল ক্যান্সারের ক্ষেত্রে যদি প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ ধরা পড়ে তবেতো রোগকে ১০০% সুস্থ করা সম্ভব। কোলোরেক্টাল ক্যান্সার ক্যান্সারে মৃত্যুর তৃতীয় কারণ। এক সময় এসব ক্যান্সার সাধারণত বয়স্কদের বেশি হত। American statistics অনুযায়ী কোলোরেক্টাল ক্যান্সার হওয়ার গড় বয়স ৬৫ বছর। যদিও বয়সের ক্ষেত্রে বৃহদান্ত্র বা কোলোন এবং রেক্টাম বা মলাশয় এর ক্ষেত্রে বয়স ভিন্ন ভিন্ন এবং নারী পুরুষ এর ক্ষেত্রেও গড় বয়স আলাদা। সহজ করার জন্য এভাবেই লিখলাম। কিন্তু লক্ষনীয় বিষয় হলো young people দের ক্ষেত্রে (৫০ বছরের কম)কোলোরেক্টাল ক্যান্সার বছরে ১.৩% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ক্যান্সারে মৃত্যু ১.২% বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্য দিকে বয়স্ক ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে ক্যান্সার এবং মৃত্যুর হার দুইটাই কমেছে। ২০৩০ সাল নাগাদ young people দের কোলোরেক্টাল ক্যান্সার আরও বৃদ্ধি পাবে। আল্লাহ তাআলা সবাইকে আজাব থেকে হেফাজত করুন। কোলোরেক্টাল ক্যান্সার স্ক্রিনিং টেস্টের মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ে নির্নয় করা সহজ। এর জন্য প্রয়োজন হয় কোলনস্কপি করা । 50 বছর বয়স থেকে শুরু হয়। ১০ বছর পর পর স্ক্রিনিং করতে হয়। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল ক্যান্সারের লক্ষ্মণ গুলো জানা এবং বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া। আমাদের আছে সবচেয়ে আপডেটড মেশিন এবং দেশের সবচেয়ে বড় এবং বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নেওয়া সর্বাধুনিক ট্রেনিং। আপনি আমাদের উপর আস্থা রাখতে পারেন।

 

পায়খানার রাস্তায় রোগ হলেই অপারেশন লাগবে এই চিন্তা পরিত্যাগ করি। শতকরা ৯০ ভাগেরও বেশি রোগ অপারেশন ছাড়া ভালো হয়। সঠিক তথ্য জানতে এবং সঠিক চিকিৎসা নিতে সাতক্ষীরার প্রথম এবং একমাত্র কোলোরেক্টাল সার্জন কর্তৃক পরিচালিত ডা. আসাদুজ্জামান পাইলস্ কেয়ার এন্ড সার্জিক্যাল সেন্টারে আসুন।

Opening hours

Vitae adipiscing turpis. Aenean ligula nibh, molestie id viverra a, dapibus at dolor.

  • 2pm - 7pm
  • 8am - 7pm

Get in touch

ডা: আসাদুজ্জামান পাইলস্ কেয়ার এন্ড সার্জিক্যাল সেন্টার পেইজে আপনাকে স্বাগতম।

আমি ডা: আসাদুজ্জামান, এমবিবিএস পাশ করেছি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ থেকে। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বা পিজি হাসপাতাল থেকে কোলোরেক্টাল সার্জারিতে এমএস ডিগ্রি অর্জন করেছি। বর্তমানে আমি সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত। আমি পাইলস্, এনাল ফিসার, ফিস্টুলা, মলদ্বার বের হয়ে আসা বা রেক্টাল প্রোলাপস্, মলদ্বার, মলাশয় ও বৃহদান্ত্রের ক্যান্সার, রক্ত আমাশয়, মলদ্বারে ব্যথা, জ্বালা পোড়া করা, পুজ ও রক্ত পড়া, বদহজম, পেটে ব্যথা, জ্বালাপোড়া করা, কোষ্ঠকাঠিন্য, ল্যাপারোস্কপিকর সাহায্যে পেট না কেটে মলদ্বার, মলাশয় ও বৃহদান্ত্রের ক্যান্সার এবং এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশন করি এবং চিকিৎসা ও পরামর্শ প্রদান করি। আমাদের দেশে কোলোরেক্টাল সার্জনের সংখ্যা খুব কম হওয়ায় যারা এ ধরনের রোগে আক্রান্ত তারা শুরুতেই একটা সমস্যায় পড়ে যান যে কোন ডাক্তারের কাছে যাব, কার কাছে সঠিক চিকিৎসা পাব তা ঠিক করতে। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বা পিজি হাসপাতালে কোলোরেক্টাল সার্জারি নামে একটি সতন্ত্র বিভাগ আছে যেখানে বৃহদান্ত্রের যাবতীয় রোগের চিকিৎসা করা হয় এবং সার্জারির সব চেয়ে বড় ডিগ্রি এমএস প্রদান করা হয়। এক সময় কোলোরেক্টাল ডিজিজ গুলোর চিকিৎসার জন্য কোন আলাদা বিভাগ ছিল না। এই রোগগুলোর চিকিৎসার নামে নানা রকম অপচিকিৎসা, কুচিকিৎসা হত এবং এখনও হয়। মানুষের ভোগান্তি দূর করার জন্য এবং বিজ্ঞানসম্মত আধুনিক চিকিৎসা প্রদান করার জন্যই বাংলাদেশে মেডিকেল সায়েন্সের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে কোলোরেক্টাল সার্জারি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হয়। আলহামদুলিল্লাহ, আমি ২০১৬ সালে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশের একমাত্র ডাক্তার হিসাবে পড়ার সুযোগ পাই। তখন একজন ডাক্তারকেই নেওয়া হত। আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে আমি উক্ত সিটে চান্স পেয়েছিলাম। জেলা প্রতি হিসাব করলেও প্রতি জেলায় একজন করেও এমএস করা কোলোরেক্টাল সার্জন নেই। আমি অক্লান্ত পরিশ্রম করে কোলোরেক্টাল সার্জারির সমস্ত রোগের উপর পড়াশোনা করেছি এবং অত্যাধুনিক সব অপারেশন দেশের সবচেয়ে দক্ষ এবং সিনিয়র বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের তত্ত্বাবধানে শিখেছি এবং করেছি। সাতক্ষীরা জেলার মধ্যে আমিই প্রথম এ ডিগ্রি অর্জন করি। পাইলস্ চিকিৎসা নানা ধরনের মানুষ করে থাকে এবং চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা এবং কুচিকিৎসা বেশি হয়। ফলে, রোগীদের ভোগান্তি আরও বৃদ্ধি পায় এবং অর্থ নষ্ট হয়। আমার মিশন হলো বাংলাদেশের মানুষকে বিজ্ঞানসম্মত আধুনিক চিকিৎসা প্রদান করা। আমার আরও একটি লক্ষ্য হলো অপচিকিৎসার হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করা। সুতরাং, আপনি নিঃসংশয়ে আমাদের পাইলস্ কেয়ার সেন্টারে এসে সেবা নিতে পারেন। আপনাকে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
    00

    days


    00

    hours


    00

    minutes


    00

    seconds


    Spread the love

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *